বুধবার,৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ অপরাহ্ন

একাকীত্বে ভুগলে যা করা প্রয়োজন

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বার, ২০১৯ ১৪ ০৪

লাইফস্টাইল ডেস্ক-

একাকীত্ববোধ ধীরে ধীরে এতোটাই অসুস্থ করে তুলবে যে, এক পর্যায় গিয়ে সুইসাইড করার মন-মানসিকতার সৃষ্টি হতে পারে। গবেষণায় বলছে, ১৫টা সিগারেট খেলে শরীরের যে পরিমাণ ক্ষতি হয় একাকীত্বের কারণেও শারীরিকভাবে ঠিক একই পরিমাণ ক্ষতি হতে পারে। যতো বেশি একাকীত্বকে প্রশ্রয় দেবেন এটি ততো বেশি গ্রাস করতে থাকবে। পৃথিবীর সব কিছু অসহ্য মনে হবে আপনার কাছে। তাই ভালো থাকতে হলে এটি থেকে বেরোনোটা জরুরি। জেনে নিন একাকীত্ব ঘোচাতে কি করা যেতে পারে।

 একাকীত্বের কারণ খুঁজে বের করুন: কিছুটা সময় নিয়ে চিন্তা করুন ঠিক কী কারণে একাকীত্বে ভোগেন? যদি উত্তর হয় যথেষ্ট বন্ধু নেই তাই একাকীত্ববোধ, তাহলে বিভিন্ন ক্লাবে যোগদান করতে পারেন। বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ করতে পারেন। মাঝে মাঝে ফ্রি সময়গুলো অসহায় শিশুদের সাথে কাটান। তাদের মুখে হাসি ফোটানোর চেষ্টা করুন। তাদের কিছু উপহার দিন।

বই পড়ার অভ্যাস: সবাই জানি, বই পড়ার অভ্যাস পৃথিবীর সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ অভ্যাসগুলোর মধ্যে অন্যতম। তবে খুব কমই কথাটা মানে না অনেকে। যখনই ফ্রি সময় পাবেন তখনই বইপড়া অভ্যাসটি চর্চা করতে পারেন। এ অভ্যাসটি সবার চেয়ে আলাদা করে তুলবে। চিন্তায় আমূল পরিবর্তন এনে দেবে। তাই এরপর থেকে আপনি আপনার অবসর সময়ে বই পড়ে কাটাতে পারেন এবং নিজের একাকীত্ব থেকে বের হয়ে আসতে পারেন। যখন উপন্যাসের চরিত্রগুলো পড়বেন তখন খারাপ সময়ে তারা নানা রকম অসুবিধাগুলো কীভাবে জয় করলো তা কল্পনায় উপলব্ধি করতে পারেন এবং তাদের মতো করে আপনিও আপনার খারাপ সময়গুলো অতিক্রম করার অনুপ্রেরণা পাবেন।

ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবুন: আপনি যখনই একা থাকবেন তখন আপনি আপনার ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তা করতে পারেন। আপনি চিন্তা করতে পারেন কোন কাজটি আমার জন্য ভালো হতে পারে, চাকরি নাকি বিজনেস? কী করলে আমার ভালো হবে, ব্যাংকে চাকরি নাকি সরকারী চাকরি? আপনি যখন আপনার একাকীত্বের সময় এই সকল প্রশ্ন আপনার মনকে করবেন, তখন আপনি নিজের অজান্তেই আপনার একাকীত্ব থেকে বের হয়ে আসবেন। নিজেকে আর একা মনে হবে না এবং আপনার ক্যারিয়ার নিয়ে আপনি বেশ কিছু ভালো চিন্তা-ভাবনার বিকাশ ঘটবে। তাই নিজের একাকীত্ব দূর করতে নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তা করুন।

মেডিটেশন: আপনি নিয়মিত মেডিটেশন করলে আপনার সকল হতাশা, একাকীত্ব, বিষণ্ণতা খুব সহজে দূর করতে পারবেন। মেডিটেশনের প্রথম লাভই হলো, ‘টেনশন মুক্তি’। বলা হয়, টেনশন ও শিথিলায়ন একসাথে থাকতে পারে না। যে শরীরে টেনশন থাকে, সে শরীরে শিথিলায়ন থাকে না এবং শিথিল হলে টেনশন পালিয়ে যায়। আমরা জানি, মনোদৈহিক ৭৫ ভাগ রোগের কারণই টেনশন। তাই মেডিটেশন করলে আপনি অনায়াসেই শতকরা ৭৫ ভাগ মনোদৈহিক রোগ, যেমনঃ মাইগ্রেন, সাইনুসাইটিস, ঘাড়ে-পিঠে-কোমরে বা শরীরের যেকোনো স্থানে দীর্ঘদিনের ব্যথা, হজমের সমস্যা, আইবিএস, এসিডিটি, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, অনিদ্রা প্রভৃতি রোগগুলো থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2018 Andolon71
Theme Developed BY Rokonuddin