বুধবার,২১ অক্টোবর, ২০২০ অপরাহ্ন

১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে এমপি নিক্সনের মিছিল

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৭ অক্টোবার, ২০২০ ১৮ ১০

ফরিদপুর প্রতিনিধি- 

সদরপুরে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে ফরিদপুর-৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য (এমপি) মুজিবর রহমান ওরফে নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে মিছিল হয়েছে। তবে নিক্সনবিরোধী আওয়ামী লীগের অন্য অংশকে মাঠে দেখা যায়নি। 

আজ শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরের দিন সকাল ৯টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার জন্য সদরপুর উপজেলা পরিষদে কমপ্লেক্সে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সদরপুর সরকারি কালেজ এলাকাসহ এক বর্গকিলোমিটার এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে উপজেলা প্রশাসন।

১০ অক্টোবর চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এমপি নিক্সন চৌধুরী জেলা প্রশাসকের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন এবং চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে ফোন করে গালিগালাজ, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি দেন বলে অভিযোগ ওঠে। ওই ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নওয়াবুল ইসলাম বাদী হয়ে সাংসদ নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে চরভদ্রাসন থানায় একটি মামলা করেন।

১০ অক্টোবর চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাউছার হোসেন জাফর উল্যার প্রতি আনুগত্য ছেড়ে নিক্সন শিবিরে যোগ দেন নির্বাচনের ১৫ দিন আগে। ফলে নিক্সনের সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে কাউসার নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেন এবং বিজয়ী হন। কিন্তু ওই নির্বাচন চলাকালে কাউসার সমর্থক কয়েকজন এজেন্ট ও কর্মী জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টা করলে কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাদের বাধা দেন। এটাকে কেন্দ্র করে নিক্সন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও জেসমিন সুলতানাকে মুঠোফোনে আপত্তিকর কথা বলেন। এরই ধারাবাহিকতায় রাত আটটার দিকে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর সাংসদ নিক্সন জেলা প্রশাসককে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন।

এসব ঘটনার প্রেক্ষাপটে নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার চরভদ্রাসন থানায় একটি মামলা হয়। মামলা দায়েরের পর তিন উপজেলার আওতাধীন দুই ভাগে বিভক্ত আওয়ামী লীগ পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করে। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে এ জাতীয় কর্মসূচি পালন করা হয় ভাঙ্গায়। সমর্থকেরা সাংসদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এই কর্মসূচি পালন করেন। অন্যদিকে নিক্সনবিরোধীরা জেলা প্রশাসক ও ইউএনওকে গালাগালি করার প্রতিবাদে বিচার দাবি করে কর্মসূচি পালন করেন।

১৪৪ ধারা জারির আগে সদরপুর উপজেলার কাজী জাফর উল্যা–সমর্থিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সাত্তার হোসেন ফকির বলেন, ‘গত বুধবার আমরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করার জন্য ইউএনওর কাছ থেকে অনুমতি নিই। কিন্তু আমাদের কর্মসূচি বাধাগ্রস্ত করার জন্য নিক্সন চৌধুরীর সমর্থকেরা গত বৃহস্পতিবার পাল্টা কর্মসূচির ডাকে।’ আর নিক্সন–সমর্থক সদরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী শফিকুর রহমান বলেন, ‘সাংসদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আমাদের আন্দোলন চলছে।’


নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2018 Andolon71
Theme Developed BY Rokonuddin