বুধবার,১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ অপরাহ্ন

৩৫ বছর ধরে কণ্ঠে 'লাগবে শীলপাটা ধার'

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ০৮ সেপ্টেম্বার, ২০১৯ ২২ ২৮
  • 507 বার পঠিত

হাবিবুল্লাহ বাহার-

'লাগবে শীল পাটা ধার' একসময় দেশের সর্বত্র শীল পাটা ধার কাটার ছন্দময় সুরের সঙ্গে পরিচয় ছিল না এমন মানুষ খুব কমই ছিলেন। গ্রামগঞ্জ এবং শহরের সর্বত্রই শ্রম-ফেরিওয়ালার এই হাঁক কানে আসতো। কিন্তু কালিগঞ্জে এখন আর শীল পাটা দেখা যায় না।

মুগ্ধ হয়ে দেখার মতো ছিল ধার কাটনেওয়ালাদের হাতের নিপুণ কাজ। পাটা ও নোড়াতে বাটাল-ছেনি দিয়ে ছোট্ট

একটি হাতুড়ির সাহায্যে ঠুকে ঠুকে ধার কাটানো দেখতো শিশুরা গোল হয়ে ঘিরে ধরতো। কাটনিওয়ালা কতো স্বাভাবিক ভঙ্গিতে পাটার পাথরটি খোদাই করে চলতো। কিছুক্ষণের মধ্যেই পুরো পাটার গা মাছের আঁশের মতো রূপ ধারণ করে ফেলেন তারা।

পাটা ধার কাটনিওয়ালারা তাদের দক্ষতা আর গৃহস্থের ইচ্ছা অনুযায়ী পাটাতে ধার কেটে কেটে ফুটিয়ে তুলতো মাছ, ফুল, লতা ও পাখির ছবি।

ভোজনরসিক বাঙালিদের ঐতিহ্যে আজও আছে হাতে বাটা মশলায় তৈরি খাবার। এখন হাতে বাটা মশলার বদলে মেশিনে ভাঙানো গুঁড়া মশলার প্রচলন এসেছে। তারপরও অনেকে হাতে বাটা মশলায় তৈরি খাবার পছন্দ করেন। এখনও টিকে আছে হাতে বাটা মশলা তৈরির শীল পাটা।

কালিগঞ্জ উপজেলার মৌতলা ইউনিয়ন পানিয়া গ্রামের মৃত্যু বাজতুল্ল সরদারের পুত্র নূরমোহাম্মাদ সরদার ওরফে ম্যানেজার (৫৫) দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে এই শীল কাটানোর কাজ করে তার জীবন জীবিকা নির্বাহ করে। কালের আবর্তনে শীলপাটা হারিয়ে যাওয়ার কারনে সে তার পরিবার নিয়ে ভাল ভাবে চলতে পারছে না। তাই তিনি এখন শীল কাটানোর কাজ বাদ দিয়ে মটর ভ্যান চালিয়ে তার জীবন জীবিকা নির্বাহ করছেন।

এই শিল্পের সাথে কর্মজীবি ব্যক্তিরা সরকারি সহযোগীতা পেলে তাদের পূর্বের পেশা ধরে রাখতে পারবে বলে ভুক্তভোগী মহল মনে করেন।

আন্দোলন৭১/এস

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2018 Rokonuddin
Theme Developed BY Rokonuddin